"ঝরাফুল" শীত বস্ত্র ও শীত সামগ্রী বিতরণ ২০১৭


শীত বস্ত্র শীত সামগ্রী বিতরণ ২০১৭

ডিসেম্বর, ২০১৭ 


*************************************************************************

" তৃপ্তিত একটি দিনের গল্প "
"ঝরাফুল"
মানবতা সেবায় আমরা

স্থানঃ নারান্দী, মনোহরদী, নরসিংদী
তারিখ : ০১/১২/১৭

ইভেন্ট পূর্ববর্তী রাত বারোটা বেজে ৩০ মিনিট, ঘড়ির কাঁটা যেন থমকে গিয়েছে, শেষবারের মত চোখ বুলিয়ে নিলাম চেক লিস্টে, কোন কিছু ভুলে যাইনিতো?

যদিও আয়োজনের সুবিধার্থে পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কম্বল বিতরন স্লিপ সহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে নরসিংদী আগেই চলে গিয়েছে আমাদের নাজমুল। তৈরি করে রেখেছিলাম অনুষ্ঠানসূচী, সেচ্ছাসেবক কার্ড, টি-শার্ট, উপস্থিতি ফরম আনুষাঙ্গিক সরঞ্জাম
তবুও বুকটা ধুক ধুক করছে, কোন ভুল হচ্ছে নাতো? ঘন্টাখানিক আগেই সবার সাথে ফোনে কথা হয়েছে, সবাই বললো সব ঠিক আছে, তবুও ভয় ভয় লাগছে।
অতঃপর ঘুমাতে গেলাম, কিন্তু ঘুম তো চোখে আসছেনা, এপাশ ওপাশ করছি, লাভ হচ্ছেনা, বারবার ঘুরেফিরে একটাই চিন্তা সব কিছু ভালোভাবে শেষ হবে তো?
যাই হোক রাত চারটার পরে কিছুতেই নিজেকে বিছানায় ধরে রাখতে পারলামনা, উঠে পরলাম, প্রথমেই ডেকে নিলাম আমার সহধর্মিণী ফারহানাকে, বলি ঘুম আসছেনা যেহেতু তৈরি হও, একমাত্র ছেলে রিজওয়ানকেও ঘুম থেকে তুলে তৈরি করে নিতে বললাম।
আবারও চোখ বুলালাম অনুষ্ঠানে নেওয়ার বাকি জিনিসপত্র সব ঠিক আছে কিনা দেখার জন্য।
এভাবেই কেটে গেল প্রায় ঘন্টাখানিক,
প্রথমেই ফোন দিলাম সাকিবকে তৈরি হয়ে রওনা দেয়ার জন্য। সময়মত নির্দিষ্ট স্থানে থাকার জন্য ফোনে তাগিদ দিলাম সবাইকে।

ঘড়িতে তখন ভোর :৪০ মিনিট, ফোন বাজছে, বিপ্লব সাকিব গাড়ি নিয়ে আমার বাসার সামনে অপেক্ষা করছে বেশকিছু সময় ধরে।
তাড়াহুড়ো করে ফারহানা রিজওয়ানকে নিয়ে নেমে পরলাম, যদিও এরই মাঝে চলে গিয়েছে ২০ মিনিট, গাড়িতে উঠেই রওয়ানা দিলাম সিটি কলেজের সামনে, ওখানে অপেক্ষা করছে সৈকত, তমা তমার ছোটবোন অনামিকা। ওদেরকে গাড়িতে তুলে চলে গেলাম কলাবাগান আরিফ আহসানুল্লাহ ভাইয়ের জন্য, আরিফ ভাইকে নিয়ে ছুটলাম কচি ভাই ভাবীর জন্য, মাঝে কথা বলি শুভর সাথে, ওদেরকে ফার্মগেট অপেক্ষা করতে বলি, আগারগাও থেকে ভাবীদের ফার্মগেট থেকে শুভ সিয়ামকে নিয়ে পরবর্তী গন্তব্যে রামপুরা রওনা দেই,
রামপুরা টিভি ভবন থেকে গাড়িতে উঠলেন আমাদের অগ্রজ আরিফুল্লাহ তরফদার ভাই তার মিষ্টি কন্যা আদিবা।
গন্তব্যে আমাদের ১০০ বছরের পুরনো নারান্দী বাজার জামে মসজিদ মাঠ, সেখানে অপেক্ষা করে আছে বীর মুক্তিযোদ্বা নুরুল ইসলাম প্রধান, মোঃ মিলন মোল্লা আরিফুল ইসলামসহ অসংখ্য গ্রামবাসী।
আরও অপেক্ষা করে আছে ১২৮টি শীতার্ত পরিবারের স্বজন, যাদের শীত নিবারনে আমাদের এই সামান্য উদ্যোগ তীব্র প্রচেস্টা।
গাড়ি চলছে, মাঝে মাঝে ঘড়ির কাঁটায় চোখ রাখছি, সময়মত পৌঁছাতে হবে যে....!!! তবে ক্ষুধা নিবারন জরুরি প্রয়োজনের জন্য পথে থামতে হলো আমাদের।
অতঃপর আবার যাত্রা, পথে ইটাখোলা বাসস্ট্যান্ডে আমাদের অপেক্ষায় ছিলো সমাজসেবী জুয়েল ভাই সাংবাদিক জহির ভাই, গাড়িতে জায়গা না হওয়ায় ওনারা বাসে কস্ট করে এসে আমাদের অনুষ্ঠানে যোগদান করেন।
১০ : ১৫ মিনিট, আমরা পৌঁছে গেলাম নারান্দী, আমাদের কাঙ্খিত গন্তব্যে
নাজমুলদের বাড়িতে গাড়ি রেখেই সোজা চলে এলাম নারান্দী বাজার মসজিদ মাঠে, উপস্থিত গ্রামবাসী আমাদের স্বাগত জানালো। মাঠে উপস্থিত তখন অনেক বৃদ্ধ/বৃদ্ধা, অসংখ্য নারী/পুরুষ ছোট্ট ছোট্ট অবুঝ শিশুসহ অনেকেই। যেন নবীন প্রবীনের এক মিলনমেলা।
বেশ ছিমছাম নারান্দী গ্রাম বাজার, বাজারের সাথেই ১০০ বছরের পুরনো ঈদগাহ মসজিদ, পাশেই বয়ে চলছে দেশের একমাত্র নদ ব্রম্মপুত্র। এখন শীতকাল, তাই নদে পানি কম, তারপরও ওখানকার অপরূপ সৌন্দর্য মুগ্ধ করলো আমাদের।আলো ঝলমলে দিন, রৌদ্রের বেশ তেজ, মাঠে লোকজন বসে আছে, উপরে সামিয়ানা না থাকায় কস্ট হচ্ছিল অপেক্ষারত গ্রামবাসীর, তাই দেরি না করে শুরু করলাম...



সপ্নময় দিনের আলোচনা পর্বঃ

অনুষ্ঠান শুরু করা হলো পবিত্র কুরআন তেলওয়াতের মাধ্যমে, অনুষ্ঠান শুরু করার অনুমতি দিলেন "ঝরা ফুল" এর উপদেষ্টা শীত সামগ্রী বিতরন-২০১৭ অনুষ্ঠানের সভাপতি আরিফুল্লাহ তরফদার ভাই,
মধুর কন্ঠে কুরআন তেলওয়াত করেন "ঝরা ফুল" এর সদস্য সাকিব রায়হান।
গ্রামবাসীর পক্ষ থেকে মহান আল্লাহ্ তা'য়ালার নিকট "ঝরা ফুল" এর সফলতা, সাহায্য উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করে মুনাজাত পর্ব পরিচালনা করেন নারান্দী বাজার মসজিদের ইমাম খতিব মাওলানা মোঃ ওমর ফারুক।
সূচনা বক্তব্য প্রদান করেন "ঝরা ফুল" এর আহবায়ক আরিফ আহসানুল্লাহ ভাই।
পরিচয় পর্বের বক্তব্য রাখেন মাহমুদুল হাসান নাজমুল।
বিশেষ বক্তব্য প্রদান করেন "ঝরা ফুল" এর উপদেষ্টা, সাংবাদিক সমাজসেবী রাশেদুল ইসলাম জুয়েল ভাই।
আরও বক্তব্য প্রদান করেন যিনি আমাদেরকে অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করেছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম প্রধান।
শীত সামগ্রী বিতরন ২০১৭ অনুষ্ঠানের সভাপতি আরিফুল্লাহ তরফদার ভাইয়ের মূল্যবান বক্তব্যের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে আলোচনা পর্ব শেষ হয়।


এর পরেই শুরু হয় আমাদের আর্ত মানবতার প্রতি দায়িত্ব জাগ্রতবোধের চেতনাস্বরূপ মানবতার সেবায়.....

"শীত সামগ্রী বিতরন পর্ব ২০১৭"
♡♡ কম্বল জনপ্রতি ০১ টি
♡♡ পেট্রোলিয়াম জেলি জনপ্রতি ০১ টি













সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অনুষ্ঠানটি সুশৃঙ্খল করার লক্ষে আগেই "ঝরা ফুল" এর সেচ্ছাসেবকদের দায়িত্ব বন্টন করা হয়।
শৃঙ্খলা নিরাপত্তায় :
সৈকত হাসান
এম.এম.বিপ্লব
সাকিব রায়হান
স্লিপ সংগ্রহ তত্ত্বাবধানে :
ফারহানা মাহমুদ
তমা বালা
স্থিরচিত্র ধারনে :
আশরাফুল সিয়াম
উপস্থিতির স্বাক্ষর গ্রহনে :                                                                       
তাহমিদ শুভ
দুপুরের খাবার আতিথেয়তার গুরুদায়িত্বে :
মাহমুদুল হাসান নাজমুল
তার পরিবারবর্গ
পরিচালনা সঞ্চালনায় :
☆☆ ফয়সাল মাহমুদ
প্রথমেই কম্বল পেট্রোলিয়াম জেলি বিতরন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি : বীর মুক্তিযোদ্বা নুরুল ইসলাম প্রধান,

পরবর্তীতে..........
বিশেষ অতিথি : সাংবাদিক সমাজসেবক রাশেদুল ইসলাম জুয়েল,
অনুষ্ঠানের সভাপতি : আরিফুল্লাহ তরফদার,
"ঝরা ফুল" এর উপদেষ্টাগন,
আহবায়ক : আরিফ আহসানুল্লাহ,
সদস্য সচিব : ফয়সাল মাহমুদ
সাংবাদিক জহির,
নাজমুলের বাবা মোঃমিলন মোল্লা,
কচিভাই জেসমিন সুলতানা ভাবী
" ঝরা ফুল" এর সকল সদস্যবৃন্দ
ছোট্ট হিরো রিজওয়ান মাহমুদ,
মিস্টি মেয়ে আদিবাসহ
উপস্থিত গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।





যদিও তপ্ত রোদে উপস্থিত সকলেরই কস্ট হয়েছে তবুও শীত সামগ্রী বিতরন সফলভাবে শেষ করে নদের পাড়ে মসজিদ মাঠেই গ্রামের লোকজনের সাথে চলে জমজমাট আড্ডা, চা নাস্তা ছবি তোলার আয়োজন।
এরপর গ্রামবাসীর নিকট থেকে আন্তরিকার সাথে বিদায় নিয়ে হেঁটে চলে যাই নিকটবর্তী শরাফত আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে
ওখানেও চলে মন খুলে আড্ডা, হৈ হুল্লোর, উড়তে চাওয়ার অবিরাম চেস্টা আর দারুন কিছু ছবি তোলা।
সময় গড়িয়ে চলছে,
দুপুরের খাওয়া ঢাকা ফেরার তাগিদে আবারও নাজমুলদের বাসায়,
হাত মুখ ধুয়ে/অযু শেষে জুম্মার নামাজ আদায় করে দুপুরের খাবারের জন্য তৈরি হলো সবাই, শুরু হলো খাওয়া দাওয়ার পর্ব :
গাড়ি চালক আলতাফ ভাইসহ সকলেই একত্রে খেতে বসলাম।
ওহ....কি অসাধারণ.....নাজমুলের মায়ের হাতের রান্না....!!! করল্লা ভাজি, ভাজা মাছ, মুরগি ভূনা, বড় রুই মাছের ঝোল, ঘন ডাল আরও কত কি?
প্রায় ২০ জন মানুষের খাওয়া খরচ, না জানি আংকেলের কত খরচ করালাম?
আমরা কৃতজ্ঞ নাজমুলের বাবা-মা ভাই-বোনের প্রতি। আমরা তাঁদের আতিথেয়তায় মুগ্ধ। ♡♡♡
পেটপুরে নাক ডুবিয়ে খেলাম আমরা, যতক্ষণ না পেট ফুলে ঢোল হয়।
আবারও আড্ডা, রেস্ট তৈরি হওয়া ঢাকায় ফেরার জন্য।
অতঃপর বিদায়ের সুর,
সবার কাছে বিদায় নিয়ে গাড়িতে উঠলাম। নাজমুল এর বাড়ির সবাই গাড়িতে উঠিয়ে তবেই বিদায় নিলো। গাড়ি চলছে, গন্তব্যে আবারও কংক্রিটের কর্ম ব্যস্ত শহরে ফিরে আসা।
পড়ন্ত বিকেলের স্নিগ্ধ আলোয় গাড়ি এগিয়ে চলছে সামনের দিকে, আর আমরা ভূগছি ভীষন বিষন্নতায়......
তবে অল্প সময় পরেই পিছনে ফেলে আসা বিদায়ী স্মৃতিময় দিনের মত বিষন্নতা ভূলে সবাই মেতে উঠলাম আনন্দে। এই আনন্দ সফলতার....
স্বার্থকতার.......♡♡
"গান চলছে, কোরাস চলছে,
চলছে গাড়ির চাকা।
হাতছানি দিয়ে ডাকছে আমায়,
চির ব্যস্ত ঢাকা।"
মাঝে আবার পথে নামলাম চা খাওয়ার জন্য, কেউ খেলো গরম ডিম, কেউবা কলা, চিপস। আমরা কয়েকজন খেলাম দারুণ স্বাধের গরম রসগোল্লা।
নাস্তা শেষে আবারও যাত্রা শহরের বাড়ির পানে, যদিও বেশ খানিকটা বিরক্তিকর যানজট ছিল তবুও একসময় পথ ফুরিয়ে গেল, এখন আর কাউকেই আটকে রাখা যাবেনা, সময় হলো যে যার বাড়িতে ফিরে যাওয়ার, গাড়িতে উঠার মতো একে একে সবাই যার যার নির্দিষ্ট জায়গায় নেমে গেলাম, কয়েকদফা নিজেদের মাঝে বিদায় নিলাম।
একটি স্মৃতিময় দিনের সমাপ্তি হলো।

আমাদের পাওয়া : "কিছু অসহায় পরিবারের স্বজনদের তৃপ্তিত মুখের অমলিন হাসি"

পরিশেষে কৃতজ্ঞতা আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই তাঁদেরকে,
যাঁদের আর্থিক সহায়তায় আমরা ১২৮টি অসহায় পরিবারের স্বজনদের হাতে তুলে দিতে পেরেছি শীত নিবারনে কম্বল ত্বকের সুস্থতার জন্য পেট্রোলিয়াম জেলি।
সেই সাথে আরও কৃতজ্ঞতা ভালোবাসা জানাই নাজমুল নাজমুলের বাবা-মার নিকট যাঁদের অক্লান্ত পরিশ্রম আর্থিক সহায়তায় আমাদের ভূরিভোজের ব্যবস্থা হয়েছে।
কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি গ্রামবাসির প্রতিও, তাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ সহযোগিতায় শীত সামগ্রী বিতরন ২০১৭ অনুষ্ঠানটি সাফল্যমন্ডিত হয়েছে আমরা আরও ভালো কিছু করার জন্য অনুপ্রানিত হয়েছি।
আরও কৃতজ্ঞতা সংগ্রামী অভিবাদন জানাই আমাদের "ঝরা ফুল" পরিবারের সকল সদস্যবৃন্দকে, সকলের কঠোর পরিশ্রম যার যার
অবস্থান থেকে সর্বোচ্চ শ্রম, মেধা
আর্থিক সহযোগিতার জন্য।


এখানে উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো আমরা শীত সামগ্রী ক্রয় অনুষ্ঠানস্থলে যাতায়াত ভাড়া ব্যতীত সকল খরচ "ঝরা ফুল" এর সদস্যগন নিজেদের মাঝে চাঁদা উত্তোলনের মাধ্যমে পূরন করি।
বিশেষ দ্রষ্টব্য : অনিবার্য কারণবশতঃ
"ঝরাফুল" এর সদস্য আলো মোহনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে না পারায় "ঝরাফুল" পরিবার শোকাহত।
ফয়সাল মাহমুদ
সদস্য সচিব
"ঝরাফুল"
Powered by Blogger.